ভারতীয় ভূগোলবীরভূম

বীরভূম জেলা সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর

knowledge, book, library

বীরভূম জেলাঃ বীরভূম জেলা হল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের একটি প্রশাসনিক একক। জেলাটি বর্ধমান বিভাগের অন্তর্গত সর্ব উত্তরের জেলা৷ এই জেলার সদর দফতর সিউড়ি শহরে অবস্থিত। বোলপুর, রামপুরহাট ও সাঁইথিয়া এই জেলার অপর তিনটি প্রধান শহর।

Advertisement 30% Off, West Bengal Auxiliary Nursing & Midwifery And General Nursing & Midwifery Guide Book (Bengali Version)

বীরভূম জেলার পশ্চিমে ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্যের জামতাড়া, দুমকা ও পাকুড় জেলা এবং অপর তিন দিকে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ, পূর্ব বর্ধমান ও পশ্চিম বর্ধমান জেলা অবস্থিত।

এটিও পড়ুন – পশ্চিমবঙ্গের জাতীয় সড়ক (NH) এর তালিকা PDF সহ

বীরভূমকে বলা হয় “রাঙামাটির দেশ”। এই জেলার ভূসংস্থান ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য জেলার তুলনায় একটু আলাদা। জেলাটির পশ্চিমাঞ্চল ছোটোনাগপুর মালভূমির অন্তর্গত ঝোপঝাড়ে পরিপূর্ণ একটি এলাকা। এই অঞ্চলটি পশ্চিমদিক থেকে ক্রমশ ঢালু হয়ে নেমে এসে মিশেছে পূর্বদিকের পলিগঠিত উর্বর কৃষিজমিতে।

বীরভূম জেলা সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর

1820 সালে এটি বীরভূম জেলার মর্যাদা পায়।

  •  আয়তন 4.550 বর্গ কিমি।
  • অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশগত অবস্থান ঃ 23°32′ এবং 24°35 উত্তর অক্ষাংশের মধ্যে 87°25′ এবং 88°1’40” পশ্চিম দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত।
  •  সীমানাঃ উত্তরে মালদহ, দক্ষিণে বর্ধমান, পূর্বে মুর্শিদাবাদ এবং উত্তর-পশ্চিমে ঝাড়খন্ড রাজ্য অবস্থিত। ভূ-প্রকৃতি বীরভূম রাঢ় অঞ্চলের অংশ, এখানে নাইস শিলা, ল্যাটেরাইট মৃত্তিকা এবং গাঙ্গেয় পলি দেখা যায়।
  • উষ্ণ প্রস্রবণ ও আর্টেজীয় কূপঃ বক্রেশ্বর নদীর ডান তীরে এক ঝাক সালফিউরাস উষ্ণ প্রস্রবণ আছে। এই জেলার পশ্চিমে খয়রাশােল ও মহম্মদ বাজার থানা অঞ্চলে আর্টেজীয় কূপ আছে।
  • জলবায়ুঃ গ্রীষ্মকালীন সর্বোচ্চ গড় তাপমাত্রা 41°– 42° সেলসিয়াস, সর্বনিম্ন 18° সেলসিয়াস। শীতকালীন গড় তাপমাত্রা 25- 31° সে. আর সর্বনিম্ন 10° সে.। বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাত 1300 মিলিমিটার।
  • নদ-নদীঃ ময়ূরাক্ষী, অজয়, বক্রেশ্বর, কোপাই, দ্বারকা, ব্রাহ্মণী ইত্যাদি।
  •  অরণ্যাঞ্চলঃ 3.51 শতাংশ।
  • কৃষিঃ মােট কৃষিজমি (হাজার হেক্টরে)–451.12
  • খনিজ দ্রব্যঃ চীনামাটি, আকরিক লােহা, সালফেট, ক্লোরাইড, আর্গন।
  •  শিল্পঃ রেজিষ্ট্রিকৃত শিল্প প্রতিষ্ঠান–157
  • ব্যাঙ্ক ও সমবায়ঃ  ব্যাঙ্কের সংখ্যা- 174, প্রাথমিক কৃষি-সমবায় সংস্থা-337
  • জনসংখ্যাঃ মােট জনসংখ্যা–30, 12,546, জনসংখ্যার ঘনত্ব—প্রতি বর্গ কিমিতে–660
  • সাক্ষরতার হারঃ 61.48 শতাংশ।
  • স্বাস্থ্য হাসপাতালের সংখ্যা-571
  • প্রশাসনিক কাঠামােঃ মহকুমা3টি (সিউড়ি সদর, বােলপুর, রামপুরহাট); গ্রাম-পঞ্চায়েত- 167টি, আসন সংখ্য 2,258, পঞ্চায়েত সমিতি–19, আসন সংখ্যা–412, পৌরসভা–6টি। থানা—১৮টি, বিধানসভার আসন
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানঃ প্রাথমিক স্কুল-237টি, মাধ্যমিক স্কুল-256টি, উচ্চ-মাধ্যমিক স্কুল—10টি, মহাবিদ্যাল সংখ্য 12টি, লােকসভার আসন2টি। 12টি, বিশ্ববিদ্যালয়টি (বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়)।

 

বীরভূম জেলা সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর

 

প্রঃ বীরভূম জেলার আয়তন কত? উ : ৪,৫৪৫ বর্গ কিলােমিটার।

প্রঃ বীরভূম জেলায় কৃষিজমির পরিমাণ প্রতি হাজার হেক্টরে কত ভাগ?

উঃ ৩১৬.৭৪ ভাগ।

প্রঃ বীরভূম জেলায় গ্রামাঞ্চলে কত শতাংশ কৃষিজমি আছে?

উঃ ৯১.০২ শতাংশ।

প্রঃ এই জেলার মাটি কি প্রকৃতির?

উঃ ল্যাটেরাইট প্রকৃতির।

প্রঃ বীরভূম জেলার সীমানা উল্লেখ কর।

উঃ উত্তরে মালদহ, দক্ষিণে বর্ধমান, পূর্বে মুর্শিদাবাদ ও পশ্চিমে ঝাড়খণ্ড রাজ্যের

সাঁওতাল পরগনা।

প্রঃ বীরভূম জেলার জনসংখ্যা কত?

উঃ ৩০,১২,৫৪৬ জন।

প্রঃ বীরভূম জেলায় সাক্ষর ব্যক্তির সংখ্যা কত? উঃ ১৫,৭৪,৯১৫ জন।

প্রঃ বীরভূম জেলায় প্রতি বর্গ কিমিতে কত লােক বাস করে?

উঃ ৬৬৩ জন।

প্ৰঃ শহরাঞ্চলে জনবসতির ঘনত্ব কত শতাংশ?

উঃ ৮.৫৮ শতাংশ।

প্রঃ বীরভূম জেলার জেলা সদরের নাম কী?

উঃ সিউড়ি।

প্রঃ বীরভূম জেলার কটি মহাকুমা ও কি কি?

উঃ ৩টি ; সিউড়ি সদর, বােলপুর ও রামপুরহাট।

প্রঃ বীরভূম জেলার গ্রাম পঞ্চায়েতের সংখ্যা কত?

উঃ ১৬৭টি।

প্রঃ বীরভূম জেলায় কটি থানা ও ব্লক আছে? উঃ থানা ১৮টি, ব্লক ১৯টি।

প্রঃ বীরভূম জেলার একটি কেন্দ্রীয় বিশ্বৱিদ্যালয়ের নাম লেখ। উঃ বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়।

প্রঃ বীরভূম জেলায় কটি পলিটেকনিক কলেজ আছে?

উঃ ১টি।

প্রঃ বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কত সালে স্থাপিত হয় ?

উঃ ১৯৫১ সালে।

প্রঃ বীরভূম জেলায় বছরে কতটন ধান উৎপন্ন হয়?

উঃ ৭,৯৬,৫০০ টন। প্রঃ বীরভূম জেলা ডিম ও দুধ উৎপাদনে কততম স্থানাধিকার করে?

উঃ ডিম উৎপাদনে তৃতীয় ও দুধ উৎপাদনে চতুর্দশ স্থান।
প্রঃ বীরভূম জেলার আরাে কয়েকটি কৃষিজ দ্রব্যের নাম লেখ।

উঃ ছােলা, আখ ও বাবুই ঘাস।

প্রঃ বীরভূম জেলায় পাওয়া যায় এমন কয়েকটি খনিজ দ্রব্যের নাম লেখ।

উঃ গ্রানাইট, নাইস শিলা, চিনামাটি (মহম্মদবাজার)। প্রঃ বীরভূম জেলার মামাভাগ্নে পাহাড় কোন অঞ্চলে অবস্থিত?

উঃ দুবরাজপুর।

প্রঃ মামাভাগ্নে পাহাড়ের উচ্চতা কত?

উঃ ১০০ মিটার।

প্রঃ বীরভূম জেলার কয়েকটি নদীর নাম লেখ। উঃ বক্রেশ্বর, দ্বারকেশ্বর, ব্রাহ্মণী, ময়ুরাক্ষী, পাগলা, কুলা, শাল ও হিংলা নদী।

প্রঃ ব্রাহ্মণী নদীর উৎসস্থল কোথায় ?

উঃ অযােধ্যা পাহাড়ের ব্রাহ্মণী নামক ৬১ মিটার খাড়া জলপ্রপাত থেকে সৃষ্টি। প্রঃ বীরভূম জেলার একটি নদী বাঁধের নাম লেখ।

উঃ তিলাইয়া বাঁধ।

প্রঃ বীরভূম জেলার কয়েকটি বিখ্যাত স্থানের নাম লেখ। মহিষমর্দিনীর মন্দির, জয়দেবের

উঃ বক্রেশ্বরে উষ্ণ চণ্ডীদাসের নানুর গ্রাম, শ্রীনিকেতন, শান্তিনিকেতন ও তারাপীঠ।

Leave a Response

সাবক্রাইব করে পাশে থাকুন 😷

30,000+ আমাদের পরিবারে যুক্ত হয়েছেন। আপনিও সাবক্রাইবার করে যুক্ত হোন।