জীবন বিজ্ঞান

চলন ও গমন সম্পর্কিত 300 সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন PDF সহ

চলন ও গমন

চলন ও গমনঃ চলন ও গমন সম্পর্কিত 300 সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন PDF সহ শেয়ার করা হল। বিভিন্ন পরীক্ষায় উক্ত প্রশ্ন ও উত্তরগুলি কাজে আসবে।

Advertisement 30% Off, West Bengal Auxiliary Nursing & Midwifery And General Nursing & Midwifery Guide Book (Bengali Version)

প্রশ্নঃ  চলন বলতে কি বোঝ?

Ans. যে প্রক্রিয়ায় জীব উদ্দীপকের প্রভাবে সাড়া দিয়ে বা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সঞ্চালন করে, তাকে চলন বলে।

প্রশ্নঃ . গমন কাকে বলে?

Ans.  যে প্রক্রিয়ায় জীব স্বতঃস্ফূর্তভাবে বা উদ্দীপকের প্রভাবে সাড়া দিয়ে সামগ্রিকভাবে স্থান পরিবর্তন করে, তাকে গমন বলে।

প্রশ্নঃ . জীবের গমনের উদ্দেশ্য কি?

Ans.: খাদ্য অন্বেষণ, আত্মরক্ষা, বাসস্থান, প্রজনন ও অনুকূল পরিবেশ হল জীবের গমনাগমনের প্রধান উদ্দেশ্য।

প্রশ্নঃ . ট্যাকটিক চলন কাকে বলে?

Ans. বহিঃস্থ উদ্দীপক (যেমন—আলো, উষ্ণতা, রাসায়নিক বস্তু ইত্যাদি) এর প্রভাবে উদ্ভিদ-অঙ্গের যে চলন দেখা যায়, তাকে ট্যাকটিক চলন বলে।

প্রশ্নঃ  দিকনির্ণীত চলন বা ট্রপিক চলন কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদঅঙ্গের চলন যখন উদ্দীপকের গতিপথ অনুসারে হয় তখন চলন বা ট্রপিক চলন বলে। যেমন—কাও আলোর দিকে যায়, একে ফোটোট্রপিক চলন বলে।

প্রশ্নঃ . ব্যাপ্তি চলন বা ন্যাস্টিক চলন কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদঅঙ্গের চলন যখন উদ্দীপকের গতিপথ অনুসারে না হয়ে উদ্দীপকের তীব্রতার ওপর নির্ভর করে, তখন সেই চলনকে ব্যাপ্তি চলন বা ন্যাস্টিক চলন বলে। যেমন—সূর্যমুখী ফুল সূর্যালোকের উপস্থিতিতে ফোটে। একে ফোটোন্যাস্টিক চলন বলে।

প্রশ্নঃ . ফোটোট্যাক্সিস কাকে বলে?

Ans.: উদ্ভিদঅঙ্গের চলন যখন আলোক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়, তখন তাকে ফোটোট্যাক্সি বলে। যেমন – মৃদু আলোকে শেওলার চলন।

প্রশ্নঃ . কেমোট্যাক্সিস কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদঅঙ্গের চলন যখন কোন রাসায়নিক বস্তু দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়, তখন তাকে কেমোট্যাক্সিস বলে। যেমন—ফার্ন জাতীয় উদ্ভিদের শুক্রাণু ম্যালিক অ্যাসিড দ্বারা আকৃষ্ট হয়।

প্রশ্নঃ .থার্মোট্যাক্সিস কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদঅঙ্গের চলন যখন তাপমাত্রার তীব্রতার ওপর নির্ভর করে, তখন তাকে থার্মোট্যাক্সিস বলে। যেমন—ক্ল্যামাইডোমোনাস উদ্ভিদের প্রোটোপ্লাজমে এই জাতীয় চলন পরিলক্ষিত হয়।

প্রশ্নঃ . বলন বা ন্যুটেশান কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদের কোন অঙ্গের অসম বৃদ্ধির ফলে যেমন, কাণ্ডের অসম বৃদ্ধির ফলে কাগু আঁকাবাঁকা পথে বৃদ্ধি পায়। একে বলন বা ন্যুটেশান বলে। যেমন—কুমড়ো, পুই প্রভৃতি কাণ্ডের চলন।

প্রশ্নঃ. পরিবলন কাকে বলে?

Ans. : উদ্ভিদের কোন অঙ্গের বৃদ্ধি কেবল একদিকে দ্রুততর হলে অঙ্গটি স্প্রিং-এর মতো সর্পিলভাবে অগ্রসর হয়। তখন তাকে পরিবলন বলে। লাউ, কুমড়ো গাছের আকর্ষে পরিকল দেখা যায়।

প্রশ্নঃ  প্রকরণ কাকে বলে?

Ans: কোষের রসস্ফীতির তারতম্যের জন্য উদ্ভিদঅঙ্গের যে চলন দেখা যায়, তাকে প্রকরণ বলে। যেমন—বনচাড়ালের যৌগপত্রের পার্শ্বীয় পত্রক দুটি স্বতঃস্ফূর্তভাবে পর্যায়ক্রমে উপরে ও নীচে ওঠানামা করে।

প্রশ্নঃ  ফোটোট্রপিজম কাকে বলে?

Ans: যখন উদ্ভিদঅঙ্গের চলন আলোক উৎসের দিকে হয়, তখন তাকে ফোটোট্রপিজম বলে। যেমন—কাণ্ডের আলোর দিকে যাওয়া।

প্রশ্নঃ  জিওট্রপিজম কাকে বলে?

Ans.: যখন উদ্ভিদঅঙ্গের চলন অভিকর্ষের গতিপথ অনুসারে হয়, তখন তাকে জিওট্রপিজম বলে। যেমন—মূল মাটির অভ্যন্তরে বা অভিকর্ষের অনুকূলে যায়।

প্রশ্নঃ. হাইড্রোট্রপিজম কাকে বলে?

Ans. যখন উদ্ভিদঅঙ্গের চলন জলের গতিপথ অনুসারে হয়, তখন তাকে হাইড্রোট্রপিজন বলে। যেমন—মুল জলের অভিমুখে যায়।

প্রশ্নঃ  রোটেশান কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদকোষের প্রোটোপ্লাজমের চলন যদি একমুখী হয়, তবে তাকে ঘূর্ণন বা রোটেশান বলে।

প্রশ্নঃ  সারকুলেশান কাকে বলে?

Ans: উদ্ভিদকোষের প্রোটোপ্লাজমের চলন যদি একমুখী না হয়ে বহুমুখী হয়, তবে তাকে সারকুলেশান বলে।

প্রশ্নঃ  এপিন্যাস্টি কি?

Ans.: পাতার উপরের পৃষ্ঠের কোষগুলি অপেক্ষা নিম্নপৃষ্ঠের কোষগুলি কম বৃদ্ধি পেলে গোটানো পাতা খুলে যায়, এই জাতীয় চলনকে এপিন্যাস্টি বলে।

প্রশ্নঃ  একটি টবের লম্বা সোজা একক বিটপযুক্ত উদ্ভিদকে ভূমির সমান্তরাল অবস্থায় সাত দিন রাখা হল। সাত দিন পর বিটপ অংশ বেঁকে ভূমির সঙ্গে লম্বভাবে সোজা হয়ে উঠেছে দেখা যাবে। এর কারণ উল্লেখ কর।

Ans.: উদ্ভিদের বিটপে আলোক অনুকূলবর্তী চলন ও অভিকর্ষজ প্রতিকূলবর্তী চলন দেখা যায়। এই কারণে বিটপ অংশ বেঁকে ভূমির সঙ্গে লম্বভাবে সোজা হয়ে উঠেছে।

প্রশ্নঃ. অ্যামিবয়েড চলন কি?

Ans:ক্ষণপদের সাহায্যে যে চলন হয়, তাকে অ্যামিবয়েড চলন বলে।

প্রশ্নঃ  সিলিয়ারী চলন কাকে বলে?

Ans. সিলিয়ার দ্বারা যে চলন সম্পন্ন হয়, তাকে সিলিয়ারী চলন বলে।

প্রশ্নঃ  ফ্লাজেলারী চলন কি?

Ans.: ক্ল্যামাইডোমোনাস, ভলভক্স প্রভৃতি উদ্ভিদে ফ্লাজেলার সাহায্যে যে চলন সম্পন্ন হয়, তাকে ফ্লাজেলারী চলন বলে।

প্রশ্নঃ পেরিস্টালটিক চলন কাকে বলে?

Ans: পৌষ্টিক নালীর ভেতর পর্যায়ক্রমে সংকোচন ও প্রসারণজনিত চলনকে পেরিস্টালটিক চলন বলে। এর ফলে খাদ্যবস্তু পরিপাক নালীর ভেতর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে স্থানান্তরিত হতে পারে।

প্রশ্নঃ  ঐচ্ছিক পেশী কি?

Ans.: যে পেশীর সংকোচন ব্যক্তিবিশেষের ইচ্ছার ওপর নির্ভর করে, সেই পেশীকে ঐচ্ছিক পেশী বলে। যেমন—অস্থিপেশী।

প্রশ্নঃ  অনৈচ্ছিক পেশী কি?

Ans: যে পেশীর সংকোচন ব্যক্তিবিশেষের ইচ্ছার ওপর নির্ভর করে না, সেই পেশীকে অনৈচ্ছিক পেশী বলে। যেমন— হৃৎপেশী।

প্রশ্নঃ  ফ্লেক্সর পেশী কি?

Ans: যে পেশী সংকোচনের দ্বারা দুটি অস্থিকে কাছাকাছি আসতে সাহায্য করে, সেই পেশীকে ফ্লেক্সর পেশী বলে। যেমন—বাইসেপস্ পেশী।

প্রশ্নঃ  এক্সটেনসর পেশী কি?

Ans.: যে পেশী সংকোচনের দ্বারা ভাঁজ হওয়া অস্থিকে দূরে সরে যেতে সাহায্য করে, সেই পেশীকে এক্সটেনসর পেশী বলে। যেমন—ট্রাইসেপস্ পেশী।

প্রশ্নঃ  সিটা কোন্ প্রাণীতে দেখা যায়? এর কাজ কি?

Ans:সিটা কেঁচোর দেহে দেখা যায়। সিটা কেঁচোর গমনে সাহায্য করে।

প্রশ্নঃ  মানুষের গমনে সাহায্যকারী তিন প্রকার প্রাণিকলার নাম লেখ। Ans: অস্থি কলা, পেশী কলা এবং তত্ত্বময় যোজক কলা।

প্রশ্নঃ গমনে অক্ষম প্রাণীর উদাহরণ দাও।

Ans.: স্পঞ্জ, প্রবাল ইত্যাদি।

প্রশ্নঃ. একটি ন্যাস্টিক চলনের উদাহরণ দাও।

Ans.:সূর্যমুখী ফুলের পাপড়ি মেলা এবং বন্ধ হওয়া (যা সূর্যোদয়ে উন্মোচিত হয় এবং সূর্যাস্তে মুদে যায়)।

প্রশ্নঃ গমনে সক্ষম একটি উদ্ভিদের নাম লেখ।

Ans: ক্ল্যামাইডোমোনাস।

প্রশ্নঃ টিউলিপ ফুলের উন্মোচনের সঙ্গে যুক্ত চলনের নাম কি?

Ans. থার্মোন্যাস্টি।

প্রশ্নঃ ট্যাকটিক চলন দেখা যায় এমন একটি উদ্ভিদের নাম লেখ।

Ans. ভলভক্স।

প্রশ্নঃ প্রোটোপ্লাজমে কি প্রকার চলন দেখা যায় ?

Ans. রোটেশান ও সারকুলেশান।

প্রশ্নঃ কোন উদ্ভিদ ও প্রাণীতে সিলিয়ারি চলন দেখা যায়?

Ans: ক্ল্যামাইডোমোনাস—উদ্ভিদে এবং প্যারামেসিয়াম—প্রাণীতে।

প্রশ্নঃ কোন্ উদ্ভিদ ও প্রাণীতে অ্যামিবয়েড চলন দেখা যায়?

Ans.: মিক্সোমাইসিটিস—উদ্ভিদে এবং অ্যামিবা—প্রাণীতে।

প্রশ্নঃ কোন উদ্ভিদে বলন দেখা যায় ?

Ans: শিম, অপরাজিতা ইত্যাদি বল্লী জাতীয় উদ্ভিদে।

প্রশ্নঃ লজ্জাবতী লতার পাতায় ছোঁয়া

Ans: সিসমোন্যাস্টি চলন।

প্রশ্নঃ কলাপাতা বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফলক উন্মুক্ত হয়—এটি কি ধরনের চলন?

Ans. এপিন্যাস্টি।

প্রশ্নঃ. ট্রপিক চলনের একটি উদাহরণ দাও।

। Ans. গাছের কাণ্ডের আলোকের দিকে অগ্রসর হওয়া (ফোটোট্রপিজম)।

প্রশ্নঃ. বনচাঁড়ালের পার্শ্বপত্রকে কি ধরনের চলন দেখা যায়?

Ans:প্রকরণ চলন।

প্রশ্নঃ পাটগাছের পাতা প্রখর রোদ ও অধিক উষ্ণতায় খুলে যায় এবং রাতে কম উষ্ণতায় বন্ধ হয়ে যায়, একে কি ধরনের চলন বলা হয়?

Ans:নিকটিন্যাস্টি।

প্রশ্নঃ পরাগমিলনের পর পরাগনালিকা ডিম্বাণুর দিকে বৃদ্ধি পেতে থাকে-একে কি ধরনের চলন বলে?

Ans. কেমোট্রপিক।

প্রশ্নঃ পতঙ্গভুক উদ্ভিদের ক্ষেত্রে পতঙ্গদেহের প্রোটিনের সংস্পর্শে পত্রফাদের ঢাকনিতে বা কর্ষিকাগুলিতে কি ধরনের চলন দেখা যায়?

প্রশ্নঃ  ব্যাপ্তি চলনের একটি উদাহরণ দাও।

Ans.  পদ্মফুল দিনের আলোয় ফোটে এবং অন্ধকারে মুড়ে যায়।

প্রশ্নঃ  একটি এককোষী এবং একটি বহুকোষী প্রাণীর গমনাঙ্গের নাম লেখ।

Ans.: এককোষী প্রাণী অ্যামিবার গমনাঙ্গ ঋণপদ বকোষী প্রাণী মানুষের গমনাঙ্গ-পা।

প্রশ্নঃ অ্যামিবার গমন পদ্ধতির নাম কি?

Ans.: অ্যামিবয়েড গমন।

প্রশ্নঃ প্যারামেসিরামের গমনাঙ্গের নাম কি?

প্রশ্নঃ. কোন রক্তকোষে আমিংয়েড গমন দেখা যায়

Ans.: শেতে রক্তকণিকার নিউট্রোফিলে।

প্রশ্নঃ  ইউমিনার গমনাঙ্গ কি?

Ans.  ফ্লাজেলা।

প্রশ্নঃ  কোন প্রাণী সিটার সাহায্যে গমন করে?

Ans.: কেঁচো।

প্রশ্নঃ  আরশোলার ক ‘জোড়া ডানা আছে?

Ans.:  দু-জোড়া।

প্রশ্নঃ  আরশোলার ক’জোড়া পা বর্তমান?

Ans. তিন জোড়া।

প্রশ্নঃ  মাছের গমনাঙ্গের নাম কি?

Ans. পাখনা।

প্রশ্নঃ  মাছের গমনে সাহায্যকারী পেশীর নাম কি?

Ans: মায়োটোম পেশী।

প্রশ্নঃ  ব্যাঙের লিপ্তপদ কি কাজে সাহায্য করে?

Ans: ব্যাঙের লিপ্তপদ জলে সাঁতার কাটতে সাহায্য

প্রশ্নঃ কোন্ কোন্ প্রাণী উড়তে সক্ষম?

Ans: মশা, মাছি, প্রজাপতি, বাদুড়, পাখি ইত্যাদি।

প্রশ্নঃ হাইড্রার গমনাঙ্গ কি?

Ans: কর্ষিকা।

প্রশ্নঃ  হাইড্রার গমন পদ্ধতি কি?

Ans. : লুপিং ও সমারসন্টিং।

প্রশ্নঃ কোন প্রাণীর বহিঃকঙ্কাল গমনে সাহায্য করে?

Ans: আরশোলা, কাঁকড়া ইত্যাদি।

প্রশ্নঃ মেরুদণ্ডী প্রাণীর দেহে কত রকমের পেশী আছে?

Ans: ঐচ্ছিক, অনৈচ্ছিক ও হৃৎপেশী— মোট তিন ধরনের।

প্রশ্নঃ একটি ঐচ্ছিক পেশীর উদাহরণ দাও।

Ans.: হাতের বাইসেপ্স পেশী।

প্রশ্নঃ একটি অনৈচ্ছিক পেশীর উদাহরণ দাও।

Ans: পাকস্থলীর পেশী।

প্রশ্নঃ একটি ফ্রেক্সর পেশীর নাম লেখ।

Ans.: বাইসেপস্।

প্রশ্নঃ একটি এক্সটেনসর পেশীর নাম লেখ।

Ans.:  ট্রাইসেপস্।

প্রশ্নঃ  একটি শিশুর দেহে মোট কটি অস্থি থাকে?

Ans.: 350টি।

প্রশ্নঃ  একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের মোট ক’টি অস্থি থাকে?

Ans. 206টি।

প্রশ্নঃ মানবদেহের সবচেয়ে ছোট অস্থিটির নাম কি?

Ans. মধ্যকর্ণের স্টেপিস অস্থি।

প্রশ্নঃ  একটি বল ও সকেট অস্থিসন্ধির উদাহরণ দাও।

Ans.:  স্কন্ধ সন্ধি।

এটিও পড়ুন – ভারতের আন্দোলন এর গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

প্রশ্নঃ  একটি কব্জাসন্ধির উদাহরণ দাও।

Ans: কনুই সন্ধি।

প্রশ্নঃ মাছের জোড় পাখনাগুলি কি কি?

Ans: বক্ষপাখনা ও শ্রোণীপাখনা।

প্রশ্নঃ  মাছের বিজোড় পাখনাগুলি কি কি?

Ans. : পৃষ্ঠপাখনা, পায়ুপাখনা ও পুচ্ছপাখনা।

প্রশ্নঃ .কোন্ পাখনা মাছকে দিক পরিবর্তনে সাহায্য করে?

Ans. পুচ্ছপাখনা।

প্রশ্নঃ মাছের কোন্ অঙ্গ মাছকে জলে ভাসতে সাহায্য করে?

Ans: মাছের পটকা ও জোেড় পাখনা।

প্রশ্নঃ  মানুষের গমনকে কি বলে?

Ans.: দ্বিপদ গমন।

প্রশ্নঃ শামুকের গমনাঙ্গের নাম কি?

Ans. মাংসল পদ।

প্রশ্নঃ তারামাছের গমনাঙ্গের নাম কি?

Ans.: টিউব ফিট বা নালী পদ।

প্রশ্নঃ লিপ্তপদ কাদের থাকে?

Ans: হাঁস, ব্যাঙ ইত্যাদি প্রাণীর।

প্রশ্নঃ সামুদ্রিক কচ্ছপের গমনাঙ্গের নাম কি?

Ans.: • ফ্লিপার।

প্রশ্নঃ  তিমির গমনাঙ্গের নাম কি।

Ans: প্যাডেল।

প্রশ্নঃ প্যারাপোডিয়া কোন প্রাণীর গমনাঙ্গ?

Ans:নেরিস (অঙ্গুরিমাল)।

প্রশ্নঃ গমনে সহায়ক পেশীটি কি?

Ans: ঐচ্ছিক পেশী।

প্রশ্নঃ  কোন মাছ কঠিন তলের ওপর গমন করতে পারে?

Ans: কই মাছ।

প্রশ্নঃ  যদি মাছের সমস্ত পাখনা সুতো দিয়ে বেঁধে দেওয়া হয় তবে কি হতে পারে?

Ans. মাছ চলাফেরা করতে পারবে না।

প্রশ্নঃ আরশোলার কোন ডানা উড্ডয়নে সাহায্য করে?

Ans. ভেতরের ডানা বা মেটাথোরাসিক ডানা দুটি।

প্রশ্নঃ রাইগর মরটিস কোথায় দেখা যায়

Ans.: পেশীতে।

প্রশ্নঃ  অ্যামিবা কখন ঋণপদ সৃষ্টি করে?

Ans.: খাদ্যগ্রহণ ও গমনের সময়।

প্রশ্নঃ  মানুষের মেরুদণ্ডে কতগুলি অস্থি আছে?

Ans. 33টি।

প্রশ্নঃ .  দুটি অস্থির সংযোগস্থলকে কি বলে?

Ans: অস্থি সন্ধি।

প্রশ্নঃ . তোমার শরীরের নিষ্ক্রিয় পেশীটি কি?

Ans. কানের পেশী।

প্রশ্নঃ ঐচ্ছিক পেশীর রজ্জুবং প্রান্ত যা পেশীর সঙ্গে অস্থির কি বলে?

Ans: টেনডন বা কওরা। সংযোগ রক্ষা করে, তার

প্রশ্নঃ  অস্থি সন্ধিগুলি যাদের সাহায্যে পরস্পর যুক্ত থাকে, সেগুলিকে কি বলে?

Ans: লিগামেন্ট বা অস্থিবন্ধনী।

প্রশ্নঃ কি কারণে পেশী সংকোচনশীল হয়?

Ans.: মায়োফাইব্রিল নামে পেশীতত্ত্ব থাকার দরুন।

প্রশ্নঃ লিপ্তপদ গমনে সাহায্য করে এমন দুটি প্রাণীর নাম লেখ।

Ans: হাঁস ও ব্যাঙ।

প্রশ্নঃ  কোন প্রাণী ক্ষণপদের সাহায্যে

Ans. : অ্যামিবা। প্রশ্নঃ .68. পতঙ্গের ক’জোড়া পা আছে?

Ans.: তিন জোড়া।

প্রশ্নঃ . হাইড্রার গমনাঙ্গের নাম কি?

Ans: কর্ষিকা।

প্রশ্নঃ  মানবদেহের পাঁজরার অস্থির সংখ্যা কত?

Ans. 24

প্রশ্নঃ গমনে অক্ষম একটি প্রাণীর নাম লেখ।

Ans: প্রবাল।

এটিও পড়ুন – স্নায়ুতন্ত্র সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর ও PDF সহ

Leave a Response

সাবক্রাইব করে পাশে থাকুন 😷

30,000+ আমাদের পরিবারে যুক্ত হয়েছেন। আপনিও সাবক্রাইবার করে যুক্ত হোন।